SBI Loan: স্টেট ব্যাঙ্ক থেকে ৫ বছরের জন্য ১০ লক্ষ লোন নিলে কত টাকা EMI দিতে হবে? দেখে নিন হিসেব নিকেশ

SBI Loan: মনের মতো গাড়ি, মনের মতো বাড়ির ইচ্ছে থাকে সকলেরই। তবে পকেটে টান পড়ার কারণে অনেক সময় মনের ইচ্ছে পূরণ হয় না। আর তখন একপ্রকার বাধ্য হয়ে পার্সোনাল লোন…

Published By: SS Desk | Published On:

SBI Loan: মনের মতো গাড়ি, মনের মতো বাড়ির ইচ্ছে থাকে সকলেরই। তবে পকেটে টান পড়ার কারণে অনেক সময় মনের ইচ্ছে পূরণ হয় না। আর তখন একপ্রকার বাধ্য হয়ে পার্সোনাল লোন নেন আমজনতা। আজকাল বিভিন্ন সরকারি এবং বেসরকারি ব্যাঙ্কের তরফ থেকে দেওয়া হচ্ছে পার্সোনাল লোন। তবে পার্সোনাল লোনের জন্য মোটা অঙ্কের টাকা সুদ গুনতে হয় গ্রাহকদের। তাই অনেক সময় প্রয়োজন পড়লেও বাড়তি টাকার ভয়ে লোনের দিকে পা বাড়ান না অনেকেই। তবে এবার আর নেই সেই চিন্তা, গ্রাহকদের কথা চিন্তা করে দুর্দান্ত উদ্যোগ স্টেট ব্যাঙ্ক অফ ইন্ডিয়ার।

আজকাল সরকারি বেসরকারি সব ব্যাঙ্ক থেকেই পাওয়া যাচ্ছে নানান রকমের লোন। প্রতিটি ব্যাঙ্কের সুদের হার আলাদা আলাদা। কারোর বেশি তো কারোর আবার একেবারে কম। আজকের প্রতিবেদনে আলোচনা করা হলো স্টেট ব্যাঙ্ক অফ ইন্ডিয়ার পার্সোনাল লোন সম্পর্কিত নানান খুঁটিনাটি। আর দেরি না করে দেখে নেওয়া যাক বিস্তারিত।

বিভিন্ন রিপোর্ট থেকে পাওয়া তথ্য অনুযায়ী, স্টেট ব্যাঙ্কে পার্সোনাল লোনের সুদের হার ১১ শতাংশ। যা অন্যান্য ব্যাঙ্কের তুলনায় অনেকটাই কম। মূল ঋণের টাকার সঙ্গে এই সুদের হার যোগ করে টাকা শোধ করতে হয় ঋণগ্রহীতাদের। নিজের পছন্দমত সময়ের জন্য সহজেই পার্সোনাল লোন নিয়ে নিতে পারেন গ্রাহকরা।

ধরুন যদি কোনো ব্যক্তি ৫ বছরের জন্য ১০ লক্ষ টাকার পার্সোনাল লোন নিয়ে থাকেন তাহলে স্টেট ব্যাঙ্কের ইএমআই ক্যালকুলেটর অনুযায়ী ওই ব্যক্তিকে আগামী পাঁচ বছর পর্যন্ত প্রতিমাসে ইএমআই বাবদ জমা করতে হবে ২১,৭৪২ টাকা। অর্থাৎ ১০ লাখ টাকা লোন নিলে মোট ৫ বছরে ওই ব্যক্তিকে সুদ বাবদ দিতে হচ্ছে ৩, ০৪, ৫৪৫. ৩৮ টাকা। সুদে আসলে মিলিয়ে হিসেবটা দাঁড়াচ্ছে ১৩, ০৪, ৫৪৫. ৩৮ টাকা।

আবার সঠিক সময় যদি গ্রাহক ইএমআই জমা করতে না পারেন তাহলে জরিমানা বাবদ ধার্য করা হবে ২৫০ টাকা। পাশাপাশি নেগোশিয়েবল ইন্সট্রুমেন্ট অ্যাক্ট ১৮৮১ এর ইউএস ১৩৮ অনুযায়ী ঋণগ্রহীতার বিরুদ্ধে আইনি ব্যবস্থা গ্রহণ করতে পারে ব্যাঙ্ক কর্তৃপক্ষ। যদি ইএমআই জমা দেওয়ার চেক কোনোভাবে বাউন্স হয়ে যায় তাহলে জরিমানা বাবদ ঋণগ্রহীতাকে গুনতে হবে ২৫০ টাকা। যদিও প্রযুক্তিগত কারণে যদি চেক বাউন্স হয় তাহলে কিন্তু গ্রাহকের থাকছে না কোনো রকমের দোষ। সেক্ষেত্রে জরিমানাও গুনতে হচ্ছে না।

About Author
আরও পড়ুন