রাজ্য সরকারের দুর্দান্ত এই প্রকল্পে ৬০ হাজার টাকা পাবে মেয়েরা! কিভাবে আবেদন করবেন

Mukhyamantri Nijut Moyna Prakalpa : দেশের প্রত্যেকটি নাগরিক বিশেষ করে মেয়েদের কথা মাথায় রেখে মাঝেমধ্যেই সরকারের তরফ থেকে বিভিন্ন উদ্যোগ নেওয়া হয়। কেন্দ্র থেকে শুরু করে রাজ্য সরকার, উভয়েই নানান…

Published By: Debapriya Sarkar | Published On:

Mukhyamantri Nijut Moyna Prakalpa : দেশের প্রত্যেকটি নাগরিক বিশেষ করে মেয়েদের কথা মাথায় রেখে মাঝেমধ্যেই সরকারের তরফ থেকে বিভিন্ন উদ্যোগ নেওয়া হয়। কেন্দ্র থেকে শুরু করে রাজ্য সরকার, উভয়েই নানান পদক্ষেপ গ্রহণ করে মেয়েদের বিভিন্ন সুযোগ-সুবিধা প্রদানের জন্য। এই মতে পশ্চিমবঙ্গ রাজ্য সরকারের কন্যাশ্রী, রূপশ্রী এর মতো প্রকল্পের কথা বলতেই হয়। এই দুই প্রকল্পের অধীনে থাকা মেয়েরা রাজ্য সরকারের পক্ষ থেকে বিভিন্ন সুবিধা পেয়েছে। সূত্র অনুযায়ী খবর, সম্প্রতি মেয়েদের জন্য এবার এক অভিনব প্রকল্প সূচনা করতে চলেছে অসম রাজ্য।

অসমের রাজ্য সরকারের পক্ষ থেকে নতুন যে প্রকল্পটি চালু করার কথা বলা হয়েছে সেই প্রকল্পের কার্যসূচি হলো বাল্যবিবাহ কে কেন্দ্র করে। পরিষ্কারভাবে বলতে গেলে বলা যায় মূলত বাল্যবিবাহকে রুখতেই মুখ্যমন্ত্রীর এই নয়া উদ্যোগ। এই প্রকল্পের নাম দেওয়া হয়েছে ‘মুখ্যমন্ত্রী নিযুত ময়না’ (Mukhya Mantri Nijut Moina).

আরোও পড়ুনঃ প্রকাশিত হল যুবশ্রী প্রকল্পের নতুন তালিকা, নাম থাকলেই প্রতি মাসে পাবেন ২,৫০০/- টাকা

রাজ্য সরকারের এই নতুন প্রকল্পে ১০ লক্ষ মেয়ে আসবে বলে মনে করা হচ্ছে। এই প্রকল্পের জন্য প্রথম বছরে আনুমানিক ৩০০ কোটি টাকা খরচ হতে পারে বলে অনুমান। আগামী ৫ বছরের হিসেবে এই টাকার অংকটা ১৫০০ কোটিতে গিয়ে দাঁড়াতে পারে। অসমের মুখ্যমন্ত্রী হিমন্ত বিশ্বশর্মার নেতৃত্বাধীন মন্ত্রীসভা ইতিমধ্যে এই প্রকল্পের জন্য অনুমোদন দিয়ে দিয়েছেন।

• ‘মুখ্যমন্ত্রী নিযুত ময়না’ প্রকল্পে কোন শ্রেণীতে কত টাকা পাবে ছাত্রীরা ?

অসমের মুখ্যমন্ত্রী নতুন এই প্রকল্প নিয়ে সম্প্রতি মুখ খুলেছেন। তিনি বলেছেন যে, সকল ছাত্রী দশম শ্রেণীর পাস করার পর একাদশ শ্রেণীতে ভর্তি হবে। উচ্চ মাধ্যমিক পাস না করা অতি তারা প্রত্যেকে ১ হাজার টাকা করে পাবে। শুধু গরমের ছুটির দু মাস এই টাকা পাওয়া যাবে না। উচ্চ মাধ্যমিক পাস করা অবধি একজন ছাত্রী ২ বছরে মোট ২০ হাজার টাকা পাবে। প্রত্যেক মাসের ১১ তারিখে মেয়েদের অ্যাকাউন্টে এই টাকা ঢুকে যাবে সরকারের পক্ষ থেকে।

উচ্চ মাধ্যমিক পাশ করার পর যে ছাত্রীরা ডিগ্রী কোর্সের জন্য ভর্তি হবে, তারা প্রত্যেকে প্রতি মাসে ১২৫০ টাকা করে স্টাইপেন্ড পাবে। স্নাতক স্তর পাস করার আগে অব্দি যতদিন তারা পড়াশোনা করবে ততদিন প্রত্যেক মাসে তাদের অ্যাকাউন্টে এই টাকা ঢুকবে। এরপর স্নাতক পাস করে যারা স্নাতকোত্তর অর্থাৎ এম এ ও বি এড কোর্সে ভর্তি হবে তারা তাদের কোর্স শেষ করা না অবধি প্রতি মাসে ২৫০০ টাকা করে পাবে।

অর্থাৎ কোন ছাত্রী একাদশ শ্রেণীতে যদি এই প্রকল্পে নিজের নাম নথিভুক্ত করে তাহলে সে উচ্চ মাধ্যমিক পাস করা অবধি মোট ২০ হাজার টাকা পাবে। তিন বছরে স্নাতকোত্তরে পড়াশোনা করে তার একাউন্টে মোট ৪৫ হাজার টাকা এবং স্নাতকোত্তর বা বিএড পরকালীন পাবে ৬০ হাজার টাকা।

আরোও পড়ুনঃ রাজ্য সরকার চালু করছে নতুন কার্ড, বছরে পাবেন ১২,৫০০/-

• কারা ‘মুখ্যমন্ত্রী নিযুত ময়না’ প্রকল্পের সুবিধা পাবে?

অসমের সরকারের এই ‘মুখ্যমন্ত্রী নিযুত ময়না’ প্রকল্পের সুবিধা সব মেয়েদের জন্য নয়। বিধায়ক এবং মন্ত্রীর মেয়েরা এই প্রকল্পের সুবিধা পাবেনা। এছাড়া এই প্রকল্পের কারণ যেহেতু বাল্যবিবাহ রোধ করা, তাই স্কুল বা কলেজের বিবাহত ছাত্রীরা এই প্রকল্পের সুবিধা থেকে বঞ্চিত থাকবে। তবে স্নাতকোত্তর স্তরে পরকালীন বিয়ে করলে এই সুবিধা পাওয়া যাবে। এছাড়া র‍্যাগিং কিংবা শৃঙ্খলাহীনতার মত কোন কাজের সাথে জড়িয়ে থাকলে কিংবা পরীক্ষার ফলাফল ভালো না হলে অথবা কুল বা কলেজে উপস্থিত হার কম থাকলেও এই প্রকল্পের সুবিধা পাওয়া যাবে না।

About Author
Debapriya Sarkar

দেবপ্রিয়া বিগত বেশ কিছু বছর ধরে সাংবাদিকতার সাথে যুক্ত রয়েছেন। ডিজিটাল মিডিয়ার হাত ধরেই সাংবাদিকতায় তার হ...

আরও পড়ুন