PhonePe-G Pay ব্যবহার করেন? নিমিষেই ব্যাঙ্ক অ্যাকাউন্ট ফাঁকা হবে এই কাজটা করা না থাকলে

UPI Payment: বর্তমানে গোটা পৃথিবী জুড়ে ডিজিটাল মাধ্যমে কতটা উন্নত হয়েছে তা আলাদা করে বলে দেবার প্রয়োজন পড়ে না। হাতে থাকা মুঠোফোনে এখন সমস্ত কাজ করা সম্ভব হয় খুব সহজে।…

Published By: Debapriya Sarkar | Published On:

UPI Payment: বর্তমানে গোটা পৃথিবী জুড়ে ডিজিটাল মাধ্যমে কতটা উন্নত হয়েছে তা আলাদা করে বলে দেবার প্রয়োজন পড়ে না। হাতে থাকা মুঠোফোনে এখন সমস্ত কাজ করা সম্ভব হয় খুব সহজে। এই মুঠোফোন গোটা দুনিয়াকে আমাদের হাতের মুঠোয় বন্দি করেছে। এরকমই একটি ঘটনা হলো আর্থিক লেনদেন। আগে সাধারণত কোন জিনিস কেনার সময় বা কাউকে টাকা পাঠানোর হলে সেক্ষেত্রে ক্যাশ টাকা দিতে হতো অথবা বাইপোস্ট এর মাধ্যমে টাকা পাঠানো হতো। কিন্তু বর্তমানে ডিজিটাল মাধ্যমে উন্নত হওয়ায় খুব সহজেই ফোনে বিভিন্ন UPI অ্যাপের মাধ্যমে সব ধরনের লেনদেন সম্ভব হয়েছে।

এখন বাজারে বিভিন্ন ধরনের ইউপিআই অ্যাপ এসেছে। যথা, গুগল পে (Google pay), ফোন পে (PhonePe), পেটিএম (Paytm) ইত্যাদি। ক্যাশ টাকার পরিবর্তে এখন এই UPI অ্যাপ গুলোর মাধ্যমে বেশি লেনদেন করে থাকেন সাধারণ মানুষ। কিন্তু এই অ্যাপ গুলো ব্যবহারের যেমন সুবিধা রয়েছে তেমন একটা রিস্কও থেকে যায়। ডিজিটাল মাধ্যম যত বেশি সুবিধাজনক ততটা বেশি রিস্ক কারন সামান্য অসাবধানতায় হ্যাকাররা আপনার অ্যাকাউন্ট হ্যাক করে আপনার ব্যাঙ্ক অ্যাকাউন্ট ফাঁকা করে দিতে পারে নিমেশেই। এই ধরনের জালিয়াতি থেকে নিজেকে এবং নিজের পরিবারকে বাঁচাতে আজ এমন কিছু তথ্য আপনাদের জানাবো যেগুলো UPI অ্যাপ ব্যবহার করার ক্ষেত্রে জেনে রাখা অত্যন্ত প্রয়োজন। এই প্রতিবেদনটি শেষ পর্যন্ত পড়লেই আপনারা জানতে পারবেন UPI অ্যাপ জালিয়াতি থেকে সহজে বাঁচার উপায়। তাহলে দেরি না করে আসুন জেনে নিন এই তথ্য বিস্তারিতভাবে।

আরোও পড়ুনঃ মমতার কোন মাস্টারস্ট্রোকে কুপোকাত মোদী ম্যাজিক? দেখুন বিশেষজ্ঞদের মতামত

ফিঙ্গারপ্রিন্ট এবং ফেস রিকগনাইজেশন :-

যে সকল গ্রাহকরা পেমেন্ট করার জন্য প্রতিনিয়ত ফোন পে, গুগল পে এবং পেটিএম এর মতো UPI অ্যাপগুলি ব্যবহার করে থাকেন তাদের মোবাইলে অ্যাপ গুলি সুরক্ষিত জন্য অ্যাপ পিনের পাশাপাশি ফিঙ্গারপ্রিন্ট এবং ফেস রিকগনাইজেশন চালু করে রাখা উচিত। এছাড়া জালিয়াতি থেকে বাঁচার জন্য চেষ্টা করবেন এই অ্যাপ গুলোতে কিছুটা কঠিন পিন নম্বর দিয়ে রাখার। এছাড়া গ্রাহকদের উচিত মাঝেমধ্যে সেই পিন নম্বর পরিবর্তন করা।

সিকিউরিটি সফটওয়্যার ইনস্টল :-

যে সকল গ্রাহকরা ইউপিআই এর মাধ্যমে সমস্ত লেনদেন করে থাকেন তাদের অবশ্যই নিজেদের ফোনের সিকিউরিটি সফটওয়্যার ইন্সটল করে রাখা উচিত। এতে বিভিন্ন রকমের অ্যাপ হ্যাকিং থেকে সুরক্ষা পাওয়া যায়।

ডবল চেক :-

যেকোনো UPI অ্যাপের মাধ্যমে ট্রানজাকশন করার সময় গ্রাহকদের অবশ্যই সতর্ক থাকা উচিত। নতুন কোনো UPI আইডিতে টাকার ট্রান্সফার করার আগে সঠিকভাবে চেক করে নেওয়া প্রয়োজন। কাকে টাকা পাঠাচ্ছেন সেটা কনফার্ম না হয় কোনভাবেই নতুন কোন UPI আইডিতে পেমেন্ট করবেন না। এছাড়া মোবাইলে আশা কোন অচেনা নম্বর থেকে পাঠানো UPI আইডি অথবা পেমেন্ট লিঙ্কে কখনোই ক্লিক করবেন না।

পাবলিক WiFi ব্যবহার বন্ধ রাখুন :-

অনেক সময় দেখা যায় মোবাইলের ইন্টারনেট কানেকশন সঠিকভাবে কাজ করে না। এই সময় অনেকেই পাবলিক WiFi এর মাধ্যমে UPI মারফত পেমেন্ট করে থাকেন। জানিয়ে রাখি, পাবলিক ওয়াইফাই এই ধরনের অ্যাপ ব্যবহার করার ক্ষেত্রে একেবারেই সুরক্ষিত নয়। কখনো যদি আপনার ফোনের ইন্টারনেট কানেকশন কাজ না করে তাহলে ক্যাশ টাকার মাধ্যমে অথবা আপনার কোন আত্মীয়-পরিজন কিংবা বন্ধুর ওয়াইফাইয়ের সাথে কানেক্ট করে পেমেন্ট করতে পারেন। কিন্তু পেমেন্ট করার জন্য কখনোই পাবলিক WiFi ব্যবহার করবেন না।

আরোও পড়ুনঃ বলুন তো জামাইষষ্ঠীর আসল নাম কী? মেয়েরা তো দূর অস্ত, ফেল মেরেছে ৯৯% জামাই বাবাজি

অ্যাপ আপডেট :-

যে সকল গ্রাহকরা, ফোন পে, অ্যান্ড গুগল পে কিংবা পেটিএম এর মত অ্যাপগুলি ব্যবহার করে থাকেন তাদের উচিত প্রতিনিয়ত অ্যাপ গুলিকে আপডেট রাখা। এই ধরনের অ্যাপগুলিতে মূলত কম্পানিগুলি নির্দিষ্ট সময় অন্তর অন্তর সুরক্ষার ফিচার পাঠায়। গ্রাহকের উচিত সেই সুরক্ষার ফিচারগুলো অ্যাপে প্রতিনিয়ত আপডেট রাখা। তা না হলে পরবর্তীতে পেমেন্টের সময় গ্রাহকরা বিভিন্ন সমস্যার সম্মুখীন হতে পারে।

About Author
Debapriya Sarkar

দেবপ্রিয়া বিগত বেশ কিছু বছর ধরে সাংবাদিকতার সাথে যুক্ত রয়েছেন। ডিজিটাল মিডিয়ার হাত ধরেই সাংবাদিকতায় তার হ...

আরও পড়ুন